নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে পালিত হল মুক্তিযুদ্ধের প্রধান সেনাপতি বঙ্গবীর জেনারেল মুহম্মদ আতাউল গণি ওসমানীর শততম জন্মবার্ষিকী

সেপ্টেম্বর ০২ ২০১৮, ০০:২৭

ষ্টাফ রিপোর্টার : সিলেট নগরীর নাইওরপুলস্থ ওসমানী জাদুঘরে আনন্দঘন পরিবেশে শনিবার রাতের প্রথম প্রহরে জন্মদিনের কেক কাটার মাধ্যমে শুরু হয় মুক্তিবাহিনীর সর্বাধিনায়ক জেনারেল ওসমানীর শততম জন্মবার্ষিকী উদযাপন ।এসময় উপস্থিত ছিলেন শততম জন্মবার্ষিকী উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক মুক্তিযোদ্ধা সেনাপ্রধান লে. জেনারেল (অব) হারুন অর রশীদ বীরপ্রতীক। ।এছাড়াও শততম এই কেক কাটার অনুষ্ঠানে উপস্থিত হন সিলেটের বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ, মুক্তিযোদ্ধা, সাংস্কৃতিক ও সামাজিক সংগঠনের কর্মীরা । জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন কমিটির উদ্যোগে সকালে ওসমানীর মাজার জিয়ারত ও শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়। সকাল ১০টায় নগরীর নাইওরপুলস্থ ওসমানী জাদুঘর প্রাঙ্গণ থেকে ওসমানীর জন্মশত বার্ষিকী উদযাপন কমিটির আহবায়ক, সাবেক সেনাবাহিনী প্রধান ও মুক্তিযোদ্ধা জেনারেল (অব.) হারুন অর রশীদ বীরপ্রতীকের নেতৃত্বে র‌্যালিটি নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে শেষ হয়। এদিকে আজ রবিবার বিকেল সাড়ে ৩টায় সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে ‘মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবীর ওসমানীর অবদান’ শীর্ষক আলোচনা সভা, মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন বাংলাদেশের সংবিধানের অন্যতম প্রণেতা ব্যারিস্টার এম আমীরুল ইসলাম । এছাড়াও উইয়র্কে জালাবাদ অ্যাসোসিয়েশন ওসমানীর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। ওসমানী স্মৃতি পরিষদ ৩ সেপ্টেম্বর ওজোন পার্কের আল-মদিনা আরকেটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে। সেখানে পরিষদের পক্ষ থেকে মসজিদে বিশেষ দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হবে। এসব অনুষ্ঠানমালাকে সামনে রেখে ৭ সেপ্টেম্বর সংখ্যায় প্রথম আলো উত্তর আমেরিকার বিশেষ আয়োজন থাকবে। মরহুমের জীবন ও কর্মগাথা নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ নানা লেখা থাকবে । জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে ৯ সেপ্টেম্বর দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হচ্ছে কুইন্স প্যালেসে। অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি বদরুল হোসেন খান ও সাধারণ সম্পাদক জুয়েল চৌধুরী বলেন, নতুন প্রজন্মের কাছে মহান মুক্তিযুদ্ধ আর এই যুদ্ধের প্রধান সেনাপতিকে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার আয়োজন থাকবে অনুষ্ঠানমালায়। বেলা তিনটায় অনুষ্ঠান শুরু হবে। চলবে মধ্যরাত পর্যন্ত। বাংলাদেশ এবং মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা দিয়ে অনুষ্ঠানমালার সূচনা হবে। আবৃত্তি, নৃত্য, সেমিনার আর আলোচনার মাধ্যমে স্মরণ করা হবে এম এ জি ওসমানীকে।

  •