শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাচনে ভোট কারচুপি করে নৌকার প্রার্থী বিজয়ী হবেন বলে অভিযোগ সংবাদ সম্মেলনে

অক্টোবর ০৪ ২০২১, ১৭:১৯

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি: মৌলভীবাজার প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে ৪ অক্টোবর ( সোমবার ) সকাল সাড়ে ১১টায় শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাচনে সতন্ত্র প্রার্থী আফজল হক ও সতন্ত্র প্রার্থী প্রেমসাগর হাজরা অভিযোগ করেন ভোট কারচুপি করে নৌকার প্রার্থী বিজয়ী হবেন।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাচনের প্রচারনা শুরু থেকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বিভিন্নভাবে প্রচার করে বেড়াচ্ছেন, যেকোন মুল্যে কেন্দ্র দখল করে হোক, আর নির্বাচনে ভোট কারচুপি করে হোক তিনি বিজয়ী হবেন সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন সতন্ত্র প্রার্থী আফজল হক (ঘোড়া প্রতিক) ও সতন্ত্র প্রার্থী প্রেমসাগর হাজরা (আনারস প্রতিক) এসব তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আমাদের বিভিন্ন বিশ^স্তÍ সুত্রে জানতে পেরেছি নৌকার প্রার্থী শ্রীমঙ্গল পৌরসভা ও শ্রীমঙ্গল সদর ইউনিয়নের সকল ভোট সেন্টার গুলো দখল করার পায়তারা করছেন। ভোটের আগের রাতে কেন্দ্র্র দখল করার পরিকল্পনা করছেন। যেহেতু শ্রীমঙ্গল উপজেলায় কোন দূর্গম এলাকা নেই, সেহেতু আমরা আপনাদের মাধ্যমে নির্বাচন কমিশনের কাছে দাবী জানাচ্ছি, প্রত্যেকটি ভোট কেন্দ্রে ভোটের দিন সকালে ভোট শুরু হওয়ার আধা ঘন্টা আগে যাহাতে ব্যালট পেপার পৌছানো হোক।

 

প্রিয় সাংবাদিক বন্ধুরা, আমরা লক্ষ করেছি, নির্বাচনী প্রচারনার শুরু থেকেই আমাদের কর্মী সমর্থকদের নৌকা প্রতিকের প্রার্থী তার কর্মী সমর্থকদের দিয়ে বিভিন্ন ভাবে হুমকি ধামকি ভয়ভীতি দেখিয়ে আসছেন, পাশাপাশি আমাদের প্রচারনায় ব্যাঘাত ঘটিয়ে আসছেন। মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা, মিছিল এর মাধ্যমে শহর জুড়ে ত্রাশের রাজত্ব্য সৃষ্টি করে ভোটারদেরকে ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন। এহেন কর্মকান্ড সুষ্ঠ নির্বাচনের অন্তরায় বলে আমরা আশা করছি না। প্রিয় সাংবাদিক বন্ধুরা, আপনাদের মাধ্যমে আমরা প্রশাসনকে জানাতে চাই, শ্রীমঙ্গল পৌরসভা ও সদর ইউনিয়নের সকল ভোট কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ রয়েছে। প্রশাসন যেন এই কেন্দ্রগুলোকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষনা করে। সাথে সাথে উপজেলার সকল ভোট কেন্দ্রে বিজিবি মোতায়েন করার জোড় দাবী জানাচ্ছি। তারই পাশাপাশি শ্রীমঙ্গল পৌরসভা ও সদর ইউনিয়নের সব সেন্টারের জন্য আলাদাভাবে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হোক।

এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ভানু লাল রায় (নৌকা প্রতিক), জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী মিজানুর রব (লাঙ্গল প্রতিক), সতন্ত্র প্রার্থী আফজল হক (ঘোড়া প্রতিক) ও সতন্ত্র প্রাথী প্রেমসাগর হাজরা (আনারস প্রতিক) নিয়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। গত ২১ মে এই উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রনধীর কুমার দেব মারা যাওয়ায় চেয়ারম্যান পদটি শুন্য ঘোষনা করা হয়, এবং নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে আগামী ৭ অক্টোবর এই পদে ভোট গ্রহন এর তারিখ নির্ধারণ করেন নির্বাচন কমিশন। এই উপজেলায় মোট ভোটার ২লক্ষ ৩৩ হাজার ৯শত ১৬ জন।

  •