• ২৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১৬ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ , ১৯শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

লোড শেডিং এর কবলে পড়ে অতিষ্ট শ্রীমঙ্গলবাসীর জনজীবন।

admin
প্রকাশিত জুলাই ১৭, ২০১৮

ষ্টাফ রিপোর্টার : গত এক সপ্তাহ যাবত শ্রীমঙ্গলে ঘন ঘন লোড শেডিং পাল্লা দিয়ে বেড়ে যাওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েছেন বৃদ্ধ,শিশু ছাত্র-ছাত্রী, রোগী ব্যবসায়ীসহ সমাজের নানা পেশার লোক জন।
তীব্র গরমে লোড শেডিং শিকার হয়ে অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করে স্ট্যাটাস দিয়েছেন ফেইসবুকে । এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল শহরের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী লুৎফুল হক লোকমান বলেন- আমাদের জানানো হয় বিদ্যুৎ এর উন্নয়ন হয়েছে কিন্তু অন্যদিকে বিদ্যৎ এর লুকোচুরি খেলা ! কোনটা সঠিক বুঝতে পারছি না ! নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শহরের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বলেন- এভাবে বিদ্যৎ আসা যাওয়া করলে পাঠদান বাহ্যত হচ্ছে কোমলমতি বাচ্ছারা গরম জনিত অসুখ বিসুখে আক্রান্ত হচ্ছে। রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ী আরিফুর রহমান বলেন বিদ্যৎহীন রেস্টুরেন্টে গ্রাহকরা প্রবেশ করতে চান না বিশেষ করে সন্ধ্যার পরে লোড শেডিং হলে তো ব্যবস্যপাতি খুব খারাপ হয় ! শ্রীমঙ্গল ব্যবসায়ী সমিতির কার্যকরী সদস্য অজয় সিং বলেন বিদ্যৎ প্রবাহ স্বাভাবিক না থাকলে ব্যবসা স্বাভাবিক থাকে না,পল্লী বিদ্যৎ এর উচিত হবে সাধারণ ব্যবসায়ীদের কথা চিন্তা করা ।

এ ব্যাপারে মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার শীবু লাল বসু এর সাথে যোগাযোগ করা করা হলে তিনি জানান- গ্রীড লাইনে কাজ হচ্ছে তাই গ্রাহকদের সাময়িক কষ্ট পোয়াচ্ছেন, এটা লোড শেডিং না, দুই একদিনের মধ্যে কাজ সমাপ্ত হবে তখন পরিস্থিতি একদম স্বাভাবিক হয়ে যাবে।