• ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ , ১৮ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

সিলেটে অল্পের জন্য ধানের শীষ ঝুলে থাকলেও রাজশাহী ও বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে জয় পেয়েছে নৌকা

admin
প্রকাশিত জুলাই ৩১, ২০১৮

ওপেন আই ডেস্ক : গত ৩০ জুলাই সিলেট রাজশাহী ও বরিশালে একযোগে অনুষ্টিত হল বাংলাদেশ সিটি করপোরেশন নির্বাচন ২০১৮ । অনিয়ম, ভোটার লাইনে থাকাবস্হায় ব্যালট পেপার শেষ, কেন্দ্র দখল, জাল ভোটসহ নানা অভিযোগ সত্ত্বেও সম্পন্ন হল সিলেটসহ তিনটি সিটি করপোরেশন নির্বাচন ।
সিলেটে বিএনপির মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী চমক দেখিয়ে যদিও ৪,৬২৬ ভোটে এগিয়ে কিন্তু আরিফুল হককে বেসরকারিভাবে বিজয়ী ঘোষণা করতে আরো ১৬১ ভোটের প্রয়োজন ছিল । বিএনপি প্রার্থীর বক্তব্য এবং অন্য দুই সিটির নির্বাচনের পরিস্থিতি দেখে এমন ধারণা অনেকের মধ্যে সৃষ্টি হয়, হয়তো সিলেটও শাসক দলের দখলে যাবে । তবে ফলাফল ঘোষণার শুরু থেকেই চমক দেখা যায়।

সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে রিটার্নিং কর্মকর্তার দপ্তর থেকে ঘোষিত বেসরকারি ফলাফলে ১৩৪ ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ১৩২ কেন্দ্রে আরিফুল হক চৌধুরী (ধানের শীষ) পেয়েছেন ৯০ হাজার ৪৯৬ ভোট । নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বদরউদ্দিন আহমদ কামরান ( নৌকা ) পেয়েছেন ৮৫ হাজার ৮৭০ ভোট । আরিফুল ৪ হাজার ৬২৬ ভোটে এগিয়ে ।অন্য দুটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত রয়েছে। স্থগিত কেন্দ্র দুটিতে মোট ভোট ৪ হাজার ৭৮৭ ।এ নির্বাচনে ১০ হাজার ৯৫৪ ভোট পেয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী নগর জামায়াতের আমির এহসানুল মাহবুব জুবায়ের।

রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামান জানান, সিলেটে মোট ভোট কেন্দ্র ১৩৪ টি। এর মধ্যে স্থগিত হওয়া দুটো কেন্দ্রের (২৪ নম্বর ওয়ার্ডের গাজী বুরহানউদ্দিন গরম দেওয়ান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের হবিনন্দী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়) ভোটার ৪ হাজার ৪৮৭। এ হিসেবে আরিফুল হককে বেসরকারিভাবে বিজয়ী ঘোষণা করতে আরো ১৬১ ভোটের প্রয়োজন ছিল । নির্বাচনে মোট ভোট পড়েছে ১ লাখ ৯৮ হাজার ৬৫৬ টি। এর মধ্যে বাতিল হয়েছে ৭ হাজার ৩৬৭ ভোট। মোট বৈধ ভোট ১ লাখ ৯১ হাজার ২৮৯।

বিএনপির পক্ষ থেকে সোমবার দুপুরের দিকে অভিযোগ করা হয়, অন্তত ৪১টি কেন্দ্র দখল করে জাল ভোট দিয়েছে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর সমর্থকেরা। তারা বিষয়টি রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছেও জানানোর কথা বলেন।

১১১টি কেন্দ্রের ফলাফল ঘোষনার পর রাত ১১টার দিকে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বদরউদ্দিন আহমদ কামরানের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট ও দলটির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মিজবাহ উদ্দিন সিরাজ ফলাফল ঘোষণা স্থগিতের জন্য রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে আবেদন করেন। হঠাৎ এই আবেদনে বিব্রতকর পরিস্হিতিতে রিটার্নিং কর্মকর্তা বেশ কিছু সময় স্হগিত রাখেন ফলাফল ঘোষনা । এসময় এক উত্তেজনাকর পরিস্হিতির সৃষ্টি হয়।
সেখানেই মিজবাহ উদ্দিন সিরাজ সাংবাদিকদের বলেন, কেন্দ্র থেকে এজেন্টদের কাছ থেকে পাওয়া ফল এবং ঘোষিত ফলের মধ্য পার্থক্য থাকায় রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে ফল স্থগিত রাখার আবেদন করা হয়েছে।

সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রথম ঘোষিত দুটি কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) গ্রহণ করা হয়েছে, তাতে ৭৪২ ভোট বেশী পেয়েছেন আরিফুল হক চৌধুরী।
এছাড়া, সিলেট সরকারি পাইলট উচ্চবিদ্যালয়ে নিজের কেন্দ্রে হেরেছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বদরউদ্দিন আহমদ কামরান। এই কেন্দ্রের ভোটের ফলে বিএনপির প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরীর কাছে ১৩০ ভোটের ব্যবধানে হেরেছেন তিনি ।

রাজশাহী ও বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে জয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ। রাজশাহীতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী খায়রুজ্জামান লিটন বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। বরিশালে একই দলের প্রার্থী সাদিক আবদুল্লাহকে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে ।

রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনের বেসরকারি ফলে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটনকে বিজয়ী ঘোষণার পর তাঁর সমর্থকেরা ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। খায়রুজ্জামান লিটন ১ লাখ ৬৬ হাজার ৩৯৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ৭৮ হাজার ৪৯২ ভোট। এ নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা আতিয়ার রহমান এই সিটির ১৩৮টি ভোটকেন্দ্রের সব কটির ফলাফল ঘোষণা করেন।
এদিকে বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মুজিবুর রহমান রাত ১২টার দিকে ফলাফল ঘোষণা করেন। রিটার্নিং কর্মকর্তা জানান, মোট ১২৩টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ১০৭টি ভোটকেন্দ্রের ফলাফল পাওয়া গেছে। এতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ পেয়েছেন ১ লাখ ৭ হাজার ৩৫৩ ভোট। বিএনপির মেয়র প্রার্থী মো. মজিবর রহমান সরোয়ার পেয়েছেন ১৩ হাজার ১৩৫ ভোট। বাকি ১৬ কেন্দ্রের মোট (৩১,২৭৭) ভোটারের চেয়ে বেশি ভোটে সাদিক আবদুল্লাহ তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বীর চেয়ে এগিয়ে রয়েছেন। এ কারণে সাদিক আবদুল্লাহকে বেসরকারিভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। এই সিটিতে বিএনপির প্রার্থী ভোটগ্রহণ শুরু হওয়ার চার ঘণ্টা পর ভোট বর্জন করেন ।