• ২৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১৬ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ , ১৯শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

বড়লেখায় অজ্ঞাত এক নারীসহ তিনজনের লাশ উদ্ধার

admin
প্রকাশিত আগস্ট ৩১, ২০১৯
বড়লেখায় অজ্ঞাত এক নারীসহ  তিনজনের লাশ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলায় খালের পানি থেকে ভাসমান অবস্থায় অজ্ঞাত পরিচয়ের এক নারী ও দু’জনের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শনিবার (৩১ আগস্ট) একই দিনে তিনজনের লাশ পুলিশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজারের ২৫০ শয্যা হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধারকৃত দু’জন হচ্ছেন বড়লেখা উপজেলার দাসেরবাজার ইউনিয়নের চানপুর গ্রামের মৃত রমনি দাসের ছেলে কৃষক রনজিত দাস (৫০) ও তালিমপুর ইউনিয়নের সরুয়ামাঝি গ্রামের মৃত নূর উদ্দিনের ছেলে সিএনজি চালিত অটোরিকশা চালক আলী আছকর (৪৫)।

অন্যদিকে অজ্ঞাত নারীর লাশ দক্ষিণভাগ উত্তর ইউনিয়নের চুকারপুঞ্জি এলাকার ছড়া থেকে উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, তালিমপুর ইউনিয়নের সরুয়ামাঝি গ্রামের সিএনজি চালিত অটোরিকশা চালক আলী আছকরের লাশ ঘরের পাশের আম গাছের ডালের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া গেছে। আলী আছকর আগের রাতে ১১টায় খাবার খেয়ে পরিবারের সবার সাথে ঘুমিয়ে ছিলেন। সকালে তাকে খুঁজতে গিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশ দেখতে পায় তার পরিবার। খবর পেয়ে শনিবার সকালে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।

শনিবার বেলা সাড়ে বারোটার দিকে উপজেলার দাসেরবাজার ইউনিয়নের চানপুর এলাকায় নদীর পাড়ের একটি বরুণ গাছের ডালে ঝুলন্ত অবস্থায় কৃষক রনজিত দাসের লাশ উদ্ধার করা হয়। আগের রাত দুইটার দিকে ঘর থেকে বের হয়ে তিনি আর ফেরেননি। শনিবার সকালে তাকে খোঁজতে গিয়ে নদীর পাড়ে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশ দেখতে পায় তার পরিবার।

বেলা ১১টার দিকে উপজেলার দক্ষিণভাগ উত্তর ইউনিয়নের চুকারপুঞ্জি এলাকার মাধবছড়া খালের পানি থেকে ভাসমান অবস্থায় অজ্ঞাত পরিচয়ের এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। স্থানীয়দের বরাতে পুলিশ জানিয়েছে, ওই নারী মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন।

অজ্ঞাতনামা নারীসহ তিজনের লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বড়লেখা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জসীম শনিবার (৩১ আগস্ট) বলেন, ‘তিনটি পৃথক অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। স্থানীয়দের তথ্যমতে অজ্ঞাতনামা নারী মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন। তিনজনের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজারের ২৫০ শয্যা হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।