• ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ , ১৪ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

আত্নীয়ের বিয়েতে এসে লাশ হয়ে ফিরলেন তিন বছরের শিশু কন্যাসহ মা, অগ্নিকান্ডে একই পরিবারে শিশুসহ পাঁচজন নিহত

admin
প্রকাশিত জানুয়ারি ২৮, ২০২০
আত্নীয়ের বিয়েতে এসে লাশ হয়ে ফিরলেন তিন বছরের শিশু কন্যাসহ মা, অগ্নিকান্ডে একই পরিবারে শিশুসহ পাঁচজন নিহত

শাহনেওয়াজ চৌধুরী সুমন : মৌলভীবাজারে আত্নীয়ের বিয়েতে এসে লাশ হয়ে ফিরলেন তিন বছরের শিশু কন্যাসহ মা। শহরের সেন্ট্রাল রোডস্থ পিংকী সু ষ্টোরের সাথে সংযুক্ত ২য় তালার বাসিন্ধা দোকানটির সত্তাাধিকারী সুভাষ রায় এর বাসার গ্যাসের লাইন থেকে আগুনের সুত্রপাত এর ফলে এই অগ্নিকান্ডটি ঘটে । মুতুর্তেই আগুন বাসাসহ চর্তুদিকে ছডিয়ে পড়ে। এতে সুভাষ রায় ও উনার পরিবারের শিশুসহ ৫জন নিহত হন।

বিয়েতে হবিগঞ্জ থেকে স্ব-পরিবারে মৌলভীবাজারে এসেছিলেন দিপা রায় । বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে পরিবারের সাথেই হবিগঞ্জে ফিরে যাওয়ার কথা ছিলো, কিন্তু মেয়েকে নিয়ে আর বাড়ি ফেরা হলোনা দিপা রায়ের। ভয়াবহ আগুন কেড়ে নিল মা-মেয়ের জীবন ।

গত ২৮জানুয়ারী মঙ্গলবার সকাল ১০ টার দিকে মৌলভীবাজার শহরের সেন্ট্রাল রোড়ের পিংকি সুষ্টোরের সাথে সংযুক্ত দু তলা বাসার গ্যাস লাইন থেকে অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত হয়। মুতুর্তেই ধাউ ধাউ করে আগুন বাসাসহ চর্তুদিকে ছডিয়ে পড়ে।

আগুন লাগার পর সুভাষ রায়ের শ্যালকের বউ ৩৫ বছর বয়সী দিপা রায় বাসার অন্যান্য সদস্যদের মতো তিনিও ছেলেমেয়েদের নিয়ে ওই বাসায় আটকা পড়েন। প্রাণ বাঁচাতে আরও অনেকের সাথে তার ছেলে বাসার বাইরে বেরিয়ে আসতে পারলেও ৩ বছর বয়সী ছোট মেয়ে বৈশাখীকে নিয়ে বের হতে পারেন নি মা দিপা রায়। ফলে অন্য ৩ জনের সাথে মারা যান মেয়েসহ তিনিও। নিহত অন্য ৩ জন হলেন ৬৫ বছর বয়সী পিংকি সু স্টোরের মালিক সুভাষ রায় , ১৯ বছর বয়সী সুভাষ রায়ের মেয়ে প্রিয়া রায় ও ৪৮ বছর বয়সী সুভাষ রায়ের ভাইয়ের স্ত্রী দিপ্তী রায় ।
খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌছে উদ্ধার কাজ শুরু করে। দোকানের উপর আটকা পড়া ৫জনের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায় পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা । দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

পুলিশ সুপার ফারুখ আহমেদ মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন । তিনি বলেন, বাসাটি থেকে পাঁচজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।
কীভাবে দোকানে আগুন লাগল বা ক্ষয়তির পরিমাণ সম্পর্কে তাৎণিকভাবে কোনো তথ্য দিতে পারেননি ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা।

 

ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন