মৌলভীবাজারে হিউম্যান ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের মেলবন্ধন ও নৈশভোজ সম্পন্ন

ফেব্রুয়ারি ১৭ ২০২০, ১৪:০৮

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ মানবিক ও কল্যাণমূলক সমাজ প্রতিষ্ঠার লক্ষে হিউম্যান ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন এর উদ্যোগে মেলবন্ধন ও নৈশভোজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৫ ফেব্রুয়ারী শনিবার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার কামালপুর ইউনিয়নস্থ ঐতিহ্যবাহী আজমনি বহুপাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে  ইউনিয়ন ব্যাপি পারস্পরিক সু-সম্পর্ক ও ভ্রাতৃত্ববোধ  প্রতিষ্ঠার উদ্যেশ্যে ব্যাতিক্রমী এ আয়োজন করে হিউম্যান ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ।

সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম হাসান ও সাধারন সম্পাদক মো: দুলাল হোসেন জুমান এর যৌথ সঞ্চালনায় এবং সংগঠনের সভাপতি আব্দুস সামাদ খানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ৩নং কামালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সংগঠনের উপদেষ্ঠা ফয়ছল আহমেদ।

বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন আজমনি স্কুলের অবসর প্রাপ্ত সাবেক প্রধান শিক্ষক ও সংগঠনের উপদেষ্ঠা  আবু সুফিয়ান, কামালপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি  মোঃ আপ্পান আলী, যুক্তরাজ্য প্রবাসী বিশিষ্ট সমাজ সেবক  মাসুক আহমেদ, আজমনি এক্স স্টুডেন্ট কাউন্সিলের সভাপতি জনাব মছলু আহমেদ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী  শাহীনুর রশিদ, আজমনি বহুপাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মৌলুদ আহমেদ, বিশিষ্ট লেখক জনাব এম এ মুবিন, আজমনি স্কুলের এক্স স্টুডেন্ট কাউন্সিলের সহ-সভাপতি মোজাহিদ আহমেদ, মোস্তাক আহমেদ তুফায়েল, বিশিষ্ট সমাজ সেবক জসিম আহমেদ,  সিকরাইল সমাজ কল্যান সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা নাজমুল খান।

অনুষ্ঠানে  স্কুলের সাজ সজ্জা, তাবু, আতসবাজি, পিঠাপুলি, টি পয়েন্ট, শিক্ষামূলক নাটক,  কুইজ ও স্কুলের পরিচ্ছন্ন পরিবেশ সবাইকে আকৃষ্ট করে।

এছাড়াও প্রবাসে অবস্থানরত সংগঠনের সিনিয়র সহ সভাপতি মো: মিজান খান ,লন্ডন প্রবাসী নুর মোহাম্মদ সোয়াইব, পৃষ্ঠপোষক কাউন্সিলর হাসানুজ্জামান, মুহিদুর রহমান, শাহ বাবলু হোসেন, হামজা মিয়া, রাকিব হোসেন  সার্বক্ষণিক সুপরামর্শ ও  অনুষ্ঠানের খোজ খবর নেন।

সমাপনি বক্তব্যে সংগঠন এর সভাপতি জনাব আব্দুস সামাদ খান, আমাদের ইউনিয়নে একটি কল্যানমূখী সমাজ ব্যাবস্থা প্রতিষ্ঠা, পারস্পরিক সম্প্রীতি, ভ্রাতৃত্তবোধ সৃষ্টি, শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়ন, ইউনিয়নকে মাদক মুক্তকরণ ও সামাজিক সচেতনা সৃষ্টির লক্ষে কাজ করতে হিউম্যান ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন কে সাথে নিয়ে এগিয়ে চলার আহবান জানান।

আলোচনা শেষে একটি মনোরম পরিবেশে সংগঠনের সদস্য সহ প্রায় ৩০০ জন নৈশভোজে অংশগ্রহণ করেন।

  •