মৌলভীবাজারবাসী হারালো সজ্জন ব্যক্তি, আওয়ামীলীগনেতা সুলেমান আহমদকে

জুন ০৫ ২০২০, ১৪:০৫

শাহনেওয়াজ চৌধুরী সুমন : মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ১০ নং নাজিরাবাদ ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সুলেমান আহমদ গত ৪ জুন (বৃহস্পতিবার) নর্থ ইস্ট মেডিকেল কলেজে নিবিড় পরিচর্যায় থাকা অবস্থায় দুপুর তিনটার দিকে তিনি না ফেরার দেশে পাড়ি জমান । মৃত্যু পূর্বে তিনি মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ, হৃদ রোগ এবং কিডনি সমস্যা জনিত রোগে ভুগছিলেন বলে চিকিৎসকরা জানান ।

মৌলভীবাজার জেলার সাবেক ছাত্রনেতা নাজিরাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি, মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, ১০ নং নাজিরাবাদ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান বিশিষ্ট সমাজসেবক সুলেমান আহমদ গত পহেলা জুন হঠাৎ করে বুকের ব্যথায় ভুগছিলেন, পাশাপাশি জ্বর ছিল । ডাক্তারের পরামর্শমতো বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছিলেন । তিনি পূর্বে থেকেই ডায়বেটিকসহ নানা সমস্যায় জর্জরিত ছিলেন । পরদিন ২ জুন ভোরবেলা অবস্থার কিছুটা অবনতি ঘটলে অ্যাম্বুলেন্স যুগে ওনাকে সিলেট আল হারামাইন প্রাইভেট হাসপাতাল ভর্তি করা হয় । রাখা হয় নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে । সেখানে ঘন্টা পাঁচেক চিকিৎসার পর চিকিৎসকরা আরও উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন বলে অন্যত্র ভর্তি হওয়ার পরামর্শ দেন । পরে উনাকে নর্থ ইস্ট মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয় । সেখানে ডাক্তাররা কোভিড ১৯ এর উপসর্গ রয়েছে বলে সন্দেহ পোষণ করেন এবং ভর্তি নিতে অনিচ্ছা পোষণ করেন । বিভিন্ন মাধ্যমে অনুরোধে দীর্ঘ প্রায় তিন ঘণ্টা পর হাসপাতাল বহির্বিভাগে ফেলে রাখা রোগী ভর্তি নেন ‌। সেখানেও নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখা হয় । কিন্তু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কোভিড ১৯ এর কোন নমুনা সংগ্রহ করেননি কিংবা দুদিনের চিকিৎসায় কোন শারীরিক উন্নতিও পরিলক্ষিত হয়নি । পরদিন চার জুন বৃহস্পতিবার দুপুর তিনটার দিকে তিনি চিরবিদায় নেন ।

প্রয়াত সমাজকল্যাণ মন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলীর ঘনিষ্ঠজন, আওয়ামীলীগ নেতা সুলেমান আহমদের অকাল মৃত্যুতে বাংলাদেশ সরকারের বন,পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী শাহাব উদ্দিন আহমেদ এমপি, মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নেছার আহমদ এমপি, শ্রীমঙ্গল কমলগঞ্জ এলাকার সাংসদ ড. আব্দুস শহীদ এমপি, কুলাউড়ার সাংসদ ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ এমপি, মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান, মৌলভীবাজার ও হবিগঞ্জ সংরক্ষিত আসনের মহিলা সাংসদ সৈয়দা জহরা আলাউদ্দিন এমপি, সাবেক এমপি সৈয়দা সায়রা মহসিন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদের সদস্য মৌলভীবাজার ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোহাম্মদ ফিরুজ, মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সধারন সম্পাদক মিসবাউর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট রাধা পদ দেব সজল, মৌলভীবাজার পৌরসভার চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ফজলুর রহমান, মৌলভীবাজার সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ কামাল হোসেন, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ: সভাপতি আলহাজ্ব জালাল উদ্দিন, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সহ: সভাপতি এম এ রহিম সি আইপি, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আহাদ চৌধুরী, ডেইলি সিলেট এন্ড দৈনিক মৌমাছি কন্ঠের সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি ও দৈনিক মৌলভীবাজার ডট কমের সম্পাদক মোহাম্মদ মকিস মনসুর, মৌলভীবাজার জেলা যুবলীগের সভাপতি নাহিদ আহমদ ও সাধারন সম্পাদক সৈয়দ রেজাউর রহমান সুমনসহ দেশ বিদেশে বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ গভীর শোক ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন। এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যক্তিগতভাবে ইউকে বাংলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মুনজের আহমদ চৌধুরীসহ দল-মত-নির্বিশেষে অনেকেই শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা এবং উনার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন । মাত্র ৫৬ বছর বয়সে মৃত্যুকালে স্ত্রীসহ, উনার ১ মেয়ে এবং ৩ ভাতিজি ও তাদের মা কে (বড় ভাইয়ের বিধবা স্ত্রী) রেখে গেছেন । এদের সবার দেখভাল করার মতো একমাত্র তিনি ছিলেন পরিবারের চালিকাশক্তি । উনার অকালমৃত্যুতে পরিবারের সবাই মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েছে ।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, সিলেটের আল হারামাইন প্রাইভেট হাসপাতাল ও নর্থ ইস্ট মেডিকেল কলেজের কর্তব্যে অবহেলাসহ নানা সমস্যার কথা, করোনা সন্দেহে চিকিৎসা ব্যবস্থা গ্রহণ করতে নারাজ উভয় প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বশীল চিকিৎসকরা । কোন চিকিৎসা কিংবা পরীক্ষা-নিরীক্ষা ব্যতীত শুধুমাত্র কোভিড ১৯ সন্দেহে অন্যান্য রোগের চিকিৎসা প্রদানে ন্যূনতম কোন গুরুত্ব দেননি চিকিৎসকরা । এমনকি উভয় চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান নিজ দায়িত্বে এ ধরনের একজন রোগীর করোনা পরীক্ষার কোন পদক্ষেপও গ্রহণ করেননি বরং নানা বাহানা দেখিয়ে চরম ভোগান্তিতে ফেলেন সুলেমান আহমদের স্ত্রী সৈয়দা ইয়াসমিন জাহানকে । তিনি মৌলভীবাজার কাশীনাথ আলাউদ্দিন হাই স্কুল এন্ড কলেজের একজন সহকারী শিক্ষিকা । উনার সাথেও চিকিৎসকরা অশুভ আচরণ দেখিয়েছেন বলে তিনি জানান ।সুলেমান আহমদের স্ত্রীর বড় ভাই যুক্তরাজ্য প্রবাসী সৈয়দ সুহেল আহমদ এ প্রতিবেদকের মাধ্যমে সহযোগিতা চেয়ে সকল সংবাদকর্মী ও সুশীল সমাজের সবাইকে অনুরোধ করেন, আমাদের প্রিয় সিলেটের চিকিৎসা ব্যবস্থার এমন বিপর্যয় উনার ছোট বোনের স্বামীছাড়াও আরো অনেকেরই অযত্ন-অবহেলায়, বিনা চিকিৎসায় অকাল মৃত্যুর কারণ হতে পারে। তাই বিষয়টি অতি গুরুত্বপূর্ণ বিবেচনায়
দ্রুত সামাজিক তদন্ত কমিটি গঠন করে এমন অমানবিক আচরণে সমাধানের উপায় খোঁজতে সবার সহযোগিতা কামনা করেন ।

এলাকাবাসী, আত্মীয়-স্বজন ও ইউপি চেয়ারম্যান সৈয়দ এনামুল হক রাজার উপস্থিতিতে ৪ জুন রাত নটায় সুলেমান আহমদ এর গ্রামের বাড়ি নাজিরাবাদ ইউনিয়নের দুঘর গ্রামে স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাকরীম ফাউন্ডেশন এর মাধ্যমে ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতায় জানাজার নামাজ যথাযথভাবে সম্পন্ন হয় ।  উল্লেখ্য সিলেট থেকে লাশ মৌলভীবাজার নিয়ে আসার পূর্বে কর্তব্যরত ডাক্তারদের মাধ্যমে সুলেমান আহমদ এর শরীরে কোভিড ১৯ এর উপস্থিতি ছিল কিনা জানতে করোনার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ।

 

 

  •