• ১৯শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১০ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

বড়লেখায় লকডাউনে চেয়ারম্যান ও প্রধান শিক্ষক এর ব্যাগ বিতরণ !

admin
প্রকাশিত জুলাই ৯, ২০২১
বড়লেখায় লকডাউনে চেয়ারম্যান ও প্রধান শিক্ষক এর ব্যাগ বিতরণ !

বড়লেখা প্রতিনিধি : বড়লেখায় চেয়ারম্যান ও প্রধান শিক্ষকের উপস্থিতিতে ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকদের কে জরো করে ব্যাগ বিতরন করায় প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে উপজেলা প্রশাসনের লকডাউন নিয়ে প্রচার কার্যক্রম, এলাকায় তৈরি হয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া ! বড়লেখা উপজেলার ভাগাডহর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাসিদ কামাল ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ময়নুল হক সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি না মেনে ৬ জুলাই মঙ্গলবার দুপুরে স্কুলে শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবক জড়ো করে স্কুলব্যাগ বিতরণ করলেন।

জরুরী প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হতে যখন কঠোর নিষেধাজ্ঞা। করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকারী নির্দেশনা বাস্তবায়নে প্রশাসন যখন মাঠে কঠোর অবস্থানে। ঠিক তখনই প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা কে অমান্য করে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকির মধ্যে প্রধান শিক্ষক ও ইউপি চেয়ারম্যানের এ ধরণের সমাবেশ আয়োজনে বিভিন্ন মহলে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা যায় সরকারের চলমান কঠোর লকডাউন অমান্য করে ৬ জুলাই মঙ্গলবার দুপুরে ভাগাডহর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিশু শিক্ষার্থীদের মধ্যে স্কুলব্যাগ বিতরণের আয়োজন করেন প্রধান শিক্ষক নিসাদ কামাল। এতে শতাধিক শিক্ষার্থী ও অভিভাবক জড়ো হন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় নিজ বাহাদুরপুর ইউপি চেয়ারম্যান ময়নুল হক।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ইউপি মেম্বার রশিদ আহমদ সুনাম, সংরক্ষিত আসনের মহিলা মেম্বার রূপবান বেগম, শিক্ষক বিনয় কুমার দাস, সাবেক শিক্ষিকা ঝর্ণা রানী পুরকায়স্থ, ব্যবসায়ী অমিও দেব নাথ প্রমূখ।

এব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান ময়নুল হক জানান, এলজিএসপি প্রকল্প থেকে এ স্কুলের শিক্ষার্থীদের কিছু স্কুলব্যাগ বরাদ্দ ছিল। শিক্ষার্থী কিংবা অভিভাবক জড়ো করা হয়নি। প্রতীকি হিসেবে একজনকে বিতরণের পর প্রধান শিক্ষককে স্কুলব্যাগ শিক্ষার্থীদের বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে তিনি চলে যান। পরে হয়তো কিছু শিক্ষার্থী স্কুলে ছুটে গেছে।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. রফিজ মিয়া জানান, লকডাউনে স্কুলে শিক্ষার্থী জড়ো না করার ব্যাপারে প্রতিটি স্কুল প্রধানকে কঠোর নির্দেশনা দেওয়া রয়েছে। স্কুলে শিক্ষার্থী ও অভিভাবক জড়ো করে প্রধান শিক্ষক সরকারী নির্দেশনাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে মারাত্মক অন্যায় করেছেন। এব্যাপারে তাকে শোকজ করা হবে।

ইউএনও খন্দকার মুদাচ্ছির বিন আলী জানান, শিক্ষার্থীদের স্কুলে জড়ো করায় সরকারী নির্দেশনা ও স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘিত হয়েছে। এব্যাপারে খোঁজ নিয়ে তিনি বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।