সাংবাদিক ফজলুল বারীর ছেলের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

আগস্ট ২৬ ২০২১, ২৩:০৪

কুলাউড়া প্রতিনিধিঃ ‌মৌলভীবাজা‌রের কুলাউড়ার কৃ‌তী সন্তান অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী সাংবাদিক ফজলুল বারীর বড় ছেলে তৌকির তাহসিন বারী প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী পা‌লিত হ‌য়ে‌ছে।

২৫ আগস্ট বুধবার দুপু‌রে কুলাউড়া পৌর এলাকার দক্ষিণ রেলওয়ে কলোনিতে অমর্ত্য ফাউন্ডেশন ও কুলাউড়ার নিরাপদ স্বাস্থ্যরক্ষায় সামাজিক সংগঠনের আয়োজনে ছিন্নমূল পথ‌শিশু, বয়স্ক ক্ষুধার্তদের জন্য প্র‌তি‌দিন একবা‌রের দুপু‌রের খাবারের উন্মুক্ত রান্নাঘর ‘উন্দাল’ এ প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী পা‌লিত হ‌য়।

মিলাদ মাহফিলে দোয়া পরিচালনা করেন হাফিজ জুনেদ আহমদ ও মাওলানা আশরাফুল ইসলাম।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, মৌলভীবাজার সৈয়দ মুজতবা আলী পাঠাগারের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, কর্মধা উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক অজয় চন্দ্র দেব, কুলাউড়া সাংবাদিক সমিতির সাবেক সভাপতি মোক্তাদির হোসেন, জাসদ নেতা আহমেদ ইসহাক প্রিন্স, আজকের পত্রিকার কুলাউড়া প্রতিনিধি এস আলম সুমন, সাপ্তাহিক সীমান্তের ডাকের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সঞ্জয় দেবনাথ, স্টাফ রিপোর্টার নাজমুল বারী সোহেল, ক্রীড়া সংগঠক বেলায়েত হোসেন লাভলু, কুলাউড়া সংলাপের স্টাফ রিপোর্টার ইউসুফ আহমেদ ইমন, সোশ্যাল কেয়ার অব নেশনের আজিজুর রহমান উজ্জ্বল, অনুলিপি কুলাউড়ার আজহার মুনিম শাফিন প্রমুখ।
অমর্ত্যের পরিবারের পক্ষ থেকে মিলাদ মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন ফজলুল বারীর ছোটভাই ফজলুল হালিম হেলাল।
২০২০ সালের ২৫ আগস্ট মাত্র ২১ বছর বয়সে মারা যান অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী সাংবাদিক ফজলুল বারীর বড় ছেলে তৌকির তাহসান বারী অমর্ত্য। শোকার্ত পরিবার গড়ে তুলেছে একটি সেবামুলক প্রতিষ্ঠান অমর্ত্য ফাউন্ডেশন। দেশ-বিদেশের দানশীল ব্যক্তিদের সহায়তায় বাংলাদেশজুড়ে নলকূপ স্থাপনসহ নানা কর্মযজ্ঞ চলছে এ ফাউন্ডেশনের। দেশের বিভিন্ন এলাকায় ৬টি খাবার ঘরে প্রতিদিন দুই শতাধিক মানুষকে রান্না করা খাবার খেতে দেওয়া হয়। আদিবাসী ও পিছিয়ে থাকা জনগোষ্ঠীর জন্যও কাজ করছে অমর্ত্য ফাউন্ডেশন। ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার আসলামপুর গ্রামে নির্মাণ করা হচ্ছে অমর্ত্য মসজিদ।

মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ফাউন্ডেশনের খাবার ঘর ছাড়াও নানা প্রতিষ্ঠানে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে। পাশাপাশি শোকার্ত পরিবার, সকলের কাছে দোয়া কামনা করেছেন।

  •