“বরিশাল থেকে কুয়াকাটা মহাসড়কের দুর্ঘটনা রোধে খুব জরুরী ল্যাম্পপোষ্ট”

আগস্ট ২৭ ২০২১, ২১:১৭

মোঃ শামীম আহমেদ জেলা প্রতিনিধি পটুয়াখালী।বাংলাদেশের দক্ষিণ অঞ্চলের অন্যতম বৃহত্তম বিভাগ বরিশাল, বাংলাদেশের দ্বিতীয় পর্যটন এলাকা কুয়াকাটা ও বাংলাদেশের দ্বিতীয় বানিজ্য এলাকা নব গঠিত পায়রা সমুদ্র বন্দর। যা বাংলাদেশের দক্ষিণ অঞ্চলের সাধারণ জনগণের নতুন প্রজন্ম সহ বতর্মান জনগণের সাফল্যের চাবিকাঠি। এবং বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের সোনার বাংলা গড়ার অঙ্গীকার। ও বাংলাদেশের দক্ষিণ অঞ্চলের উপহার। যা জনগণের ভাগ্য পরিবর্তনের আভাস।

বরিশাল বিভাগের বুকের উপর দিয়ে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় যোগাযোগ ব্যাবস্হা সহ দক্ষিণ অঞ্চলের সপ্নের পদ্মা সেতু বাস্তবায়ন সহ মহাসড়কের উন্নয়ন মূলক রাস্তা ঘাট পরিবর্তন সহ নানা পদক্ষেপ নিয়েছেন বতর্মান সরকার।

প্রতিনিয়ত চলছে ঢাকা টু বরিশাল সহ পটুয়াখালী কুয়াকাটায় মহাসড়কে একাধিক গন পরিবহন সহ মটরসাইকেল,ব্যাটারী চালিত রিক্সা,ট্রলি,ট্রাক সহ নানা যানবাহন। যা মহাসড়ক কে সব সময় ও বিভিন্ন স্হানে জ্যাম জটিলতা সৃষ্টি সহ সাধারণ জনগণ দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে প্রতিনিয়ত। তার ভিতরে রাস্তায় রাতের অন্ধকারময় থাকায় দুর্ঘটনা আরো বৃদ্ধি করে। বরিশাল থেকে কুয়াকাটা মহাসড়কের রাস্তার পাশে একাধিক বিদুৎ লাইন সহ খাম্বা থাকা অবস্থায় নেই রাতের মহাসড়ক কে পরিঙ্কার রাখার জন্য ল্যাম্পপোষ্ট।

যাতে মহাসড়কের পাশে থাকা বিভিন্ন বাজার ঘাট সহ বিভিন্ন চৌরাস্তা সহ বিভিন্ন তিন রাস্তা সহ বিভিন্ন ফাকা রাস্তায় দুর্ঘটনার হাতের থেকে রক্ষা পাবে সাধারণ জনগণ। এবং বিভিন্ন ফাকা রাস্তায় হাইজাকার সহ ডাকাতির হাত থেকে রক্ষা পাবে পরিবহণ সহ নানা যানবাহন।

তাই অতিদ্রুত সম্ভব বরিশাল থেকে কুয়াকাটা মহাসড়কের পাশে ল্যাম্প পোস্ট তৈরি করে দক্ষিণ অঞ্চলের জনগণের যোগাযোগ ব্যাবস্হা শান্তিময় সহ দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা করার বিনিত অনুরোধ রইল বাংলাদেশ বিদুৎ মন্ত্রণালয়ের কাছে।
উক্ত সমস্যা সমাধানের জন্য বরিশাল সিটি মেয়র,বরিশাল জেলা প্রশাসক সহ পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক মহদায় সহ উক্ত অঞ্চলের সংসদ সদস্য সহ বিভিন্ন দায়িত্ব থাকা জনপ্রতিনিধি গন।

  •