ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ১৯ দফা ঘোষনা

জানুয়ারি ০৩ ২০২৩, ২০:৪৬

মোঃ আশরাফুল ইসলাম,খুলনা সদর প্রতিনিধিঃ দলীয় সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয় জানিয়ে ১৯ দফা ঘোষণা করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। এতে নির্বাচনকালীন জাতীয় সরকারের কথাও বলা হয়েছে। গতকাল সোমবার (২ জানুয়ারি) সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের জাতীয় সম্মেলন থেকে এসব ঘোষণা দেন সংগঠনটির যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান।

দলটির ১৯ দফায় বলা হয়, জনমতের ভিত্তিতে শাসনতন্ত্রের সংস্কার— বাংলাদেশের শাসনতন্ত্র তথা সংবিধানকে যথেচ্ছা সংশোধন করে জনঅধিকার খর্ব করার ঢাল বানানো হয়েছে। বর্তমান সংবিধান নিয়ে দেশের কোনো পক্ষই সন্তুষ্ট নয়। বিরোধীরা এটাকে সংস্কার করতে চাইছে।

এতে আরও বলা হয়, সরকার পক্ষও বাহাত্তরের সংবিধানে ফেরত যাওয়ার কথা বলে বর্তমান সংবিধানের প্রতি অনাস্থা জানিয়েছে। এই সংবিধান রচনায় জনমতের তোয়াক্কা করা হয়নি। পাকিস্তান আমলের পার্লামেন্ট মেম্বারদের দিয়ে এই সংবিধান পাস করানো হয়েছে। এই সংবিধান প্রণয়নে গণভোট ও হয়নি। এই ঐতিহাসিক বাস্তবতা ও চলমান গণঅসন্তোষ বিবেচনায় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এ ভূখণ্ডের মানুষের হাজার বছরের ইতিহাস-ঐতিহ্য, বোধ, বিশ্বাস ও মনস্তত্ত্ব আমলে নিয়ে এবং গণভোটের মাধ্যমে জনগণের সমর্থনের ভিত্তিতে সংবিধানের সামগ্রিক সংশোধনের প্রস্তাব করছে।

সম্মেলনে সভাপতির বক্তব্যে চরমোনাই পীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, একের পর এক কালাকানুন করে গোটা দেশকেই জেলখানা বানানো হয়েছে। বিরোধী মতকে দমন করা, গুম, রাজনৈতিক সমাবেশে গুলি করে মানুষ মারা ক্ষমতাসীনদের নিত্যদিনের কাজে পরিণত হয়েছে।’

দলটির জাতীয় সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন— তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকতউল্লাহ বুলু, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল অব. সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহীম বীর প্রতীক,এবি পার্টির আহ্বায়ক এএফএম সোলায়মান চৌধুরী, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য এএমএম আলম, গণঅধিকার পরিষদের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক মো. রাশেদ খান, ইসলামী আন্দোলনের প্রেসিডিয়াম সদস্য মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী, নায়েবে আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম, নায়েবে আমির হাফেজ মাওলানা আব্দুল আউয়াল, মহাসচিব হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ প্রমুখ।

পরে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। কমিটির তালিকা প্রকাশ করা হয়। চরমোনাই পীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করিম আবারো ইসলামী আন্দোলনের আমীর নির্বাচিত হয়েছেন। নায়েবে আমীর হয়েছেন মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করিম, হাঃ মাওলানা আব্দুল আউয়াল, মাওলানা আব্দুল হক আজাদ। মহাসচিব হয়েছেন হাফেজ মাওলানা ইউনুস আহম্মেদ সেখ। যুগ্ম মহাসচিব- মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, মুহাম্মদ আমিনুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল আলম, সহকারী মহাসচিব- হাফেজ মাওলানা ফজলে বারী মাসউদ, মাওলানা ইমতিয়াজ আলম। এছাড়াও কে এম আতিকুর রহমান সাংগঠনিক সম্পাদক, মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ুম প্রচার ও দাওয়াহ্ বিষয়ক সম্পাদক, মাওলানা লোকমান হোসেন জাফরী দফতর সম্পাদক, আলহাজ্ব হারুন অর রশীদ অর্থ ও প্রকাশনা সম্পাদক, মুফতী মোঃ হেমায়েতুল্লাহ প্রশিক্ষণ সম্পাদক, মাওলানা নেছার উদ্দিন মহিলা ও পরিবার কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক, আলহাজ মুহাম্মদ মনির হোসেন ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক, মুফতি সৈয়দ এসহাক মুহা. আবুল খায়ের ছাত্র ও যুব বিষয়ক সম্পাদক, মাওলানা এবিএম জাকারিয়া শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক, অ্যাডভোকেট শওকত আলী হাওলাদার আইন ও মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক, আলহাজ জান্নাতুল ইসলাম শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক, আলহাজ আব্দুর রহমান কৃষি ও শ্রম বিষয়ক সম্পাদক, ইঞ্জিনিয়ার শরিফুল ইসলাম তালুকদার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক, হাফেজ মাওলানা শেখ ফজলুল করীম মারুফ তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক, মাওঃ কেফায়েতুল্লাহ কাশফী প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ আবুল কাশেম মুক্তিযুদ্ধ বিষঃ সম্পাদক, মাওলানা মকবুল হোসাইন সংখ্যালঘু বিঃ সম্পাদক, অধ্যাপক ডা. নাছির উদ্দিন স্বাস্থ্য ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক।

অধ্যাপক সৈয়দ বেলায়েত হোসেন ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক, মুফতী দেলাওয়ার হোসেন সাকী চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক, মাওলানা শোয়াইব হোসেন খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক, হাফেজ মাওলানা আবুল কালাম (নাটোর), রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক, উপাধ্যক্ষ মাওলানা সিরাজুল ইসলাম বরিশাল বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক, মাওলানা মাহমুদুল হাসান (এলএলবি) সিলেট বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক, এম হাসিবুল ইসলাম রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক, জিএম রুহুল আমীন ময়মনসিংহ বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক, মাওলানা খলিলুর রহমান কুমিল্লা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক, অধ্যাপক নাছির উদ্দিন খাঁন ফরিদপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক, মোহাম্মদ বরকতুল্লাহ লতিফ, সহ-প্রচার ও দাওয়াহ্ বিষয়ক সম্পাদক, মাওলানা নুরুল করীম আকরাম সহ-দফতর সম্পাদক, মাওলানা নুরুল ইসলাম আল-আমিন সহ-অর্থ ও প্রকাশনা সম্পাদক, মাওলানা আরিফুল ইসলাম সহ-প্রশিক্ষণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন।